[ আমরা সম্মিলিত অনুশীলনের ভিত্তিতে, মানুষ ও মনুষ্যত্বের মুক্তিতে, মানবীয় মর্যাদা প্রতিষ্ঠার মহতী সংগ্রামে- আমাদের আদর্শিক সত্তা ও সমন্বয়ক দিশারী শ্রদ্ধেয় ‘বড়দা (আব্দুর রাজ্জাক মুল্লাহ রাজু শিকদার)’র নির্দেশিত পথই- সংগঠন ও সংগঠন কাঠামোর ক্ষেত্রে মতাদর্শিক দিশা হিসেবে গৃহীত; সেই আলোকেই অত্র প্রকাশনা অনুমোদিত। ]



মেনু

কহতব্য

 

৭ই মার্চের ভাষণ বিশ্ব স্বীকৃতির পথ ধরে এখন বৈশ্বিক!


১৬ই ডিসেম্বর ১৯৭১, বিশ্ব মানচিত্রে স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশের অভ্যূদয়। এটা ছিল দল-মত নির্বিশেষ সাংস্কৃতিক আন্দোলন তথা ‘৫২র ভাষা আন্দোলনেরই রাজনৈতিক পরিণতি মাত্র। সূচনায় থাকা সেই ৫২র ২১শে ফেব্রুয়ারি ইতোমধ্যে আন্তর্জাতিক মাত্রায় বৈশ্বিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে স্বীকৃত; অতঃপর আজ স্বাধীনতা সংগ্রামের মহান দামামা- বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণ স্বীকৃতি পেল! আমাদের ইতিহাসে যা সাড়ে সাত কোটি মানুষ- একটি মানুষে একীভূত হবার, এক দেশ এক জাতি এক নেতা হয়ে উঠার অনির্বাণীয় প্রামাণিক দলিল।

 

অতএব …‘নিঃসন্দেহে বঙ্গবন্ধু ব্যক্তি নন কিংবা কোন দলের নন- তিনি সর্বদা নৈর্ব্যক্তিক সত্যে আমাদের জাতীয় নিক্তি। ইতিহাসকে ছাড়িয়ে যাওয়া যায় না যেভাবে- সেভাবেই সাত কোটি থেকে ষোল কোটি… কিংবা তিনি হয়ে থাকেন তার চেয়েও ততোধিক।“... (গত ১৫ই আগস্ট ২০১৭ খ্রিস্টাব্দে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ‘‘কহতব্য‘- এ প্রকাশিত) আমাদের পূর্বোক্ত সেই প্রত্যয় এখন বিশ্ব স্বীকৃতিতে বৈশ্বিক সত্যে পরিগণিত।

 

এভাবে বাংলাদেশ ও তার জাতীয় রাজনীতির ইতিহাস ক্রমশঃ আগামী পৃথিবীর জন্য রাজনৈতিক দিশা হয়ে উঠুক- প্রাপ্তির আনন্দের সাথেই সেই প্রত্যাশাও আজ পূনর্ব্যক্ত হোক।



ক্রমিক
শিরোনাম
তারিখ
১০
নতুন সূর্যোদয়- সুস্বাগতম ২০২০ খ্রিস্টাব্দ! ২০২০-০১-০১
শুভ বড়দিন। যীশু খ্রিস্টের জন্মোৎসবে সবাইকে বড়দিনের শুভেচ্ছা। ২০১৯-১২-২৫
বিজয়ের এই মহান দিনে পৃথিবীর সব মানুষকে শুভেচ্ছা ২০১৯-১২-১৬
অবিলম্বে “১৪ই ডিসেম্বর, শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসকে রাষ্ট্রীয় ছুটি ঘোষণা করতে হবে”। ২০১৯-১২-১৪
-- ২০১৯-১২-০৫
-- ২০১৯-১১-২৪
নির্বাচন কেন্দ্রিক সংকট সমাধানে জাতীয় ঐক্যের প্রয়োজন ও প্রাসঙ্গিকতা ২০১৯-১০-১৮
দেশ ও মানুষের প্রশ্নে সবাই অভিন্ন বলেই গণতান্ত্রিক রাজনীতিতে যা সঠিক তা সবার। আর সঠিকতা আধুনিক রাজনীতিতে সর্বদা যুক্তিযুক্ততায় নির্দিষ্ট হয়। বিশ্বাসের পথ ধরে ব্যক্তি সম্পর্ক এলেও- যুক্তির পথ ধরে বিশ্বাস ও ঐক্য স্থাপনের নামই গণতান্ত্রিক সহমত বা সংস্কৃতি। আর তাই গণতন্ত্রের শ্রেষ্ঠ উচ্চারণ আজ- ‘যা সঠিক তা প্রতিষ্ঠা পাক, যা বেঠিক তা নির্মূল হোক।’ ২০১৯-১০-১৫
দেশবাসী সহ বিশ্বের সমগ্র বাংলা ভাষাভাষী মানুষকে শারদীয় দুর্গোৎসবের শুভেচ্ছা। ২০১৯-১০-০৪
জন্মাষ্টমীর শুভেচ্ছা ২০১৯-০৮-২৩

previous123456next