[ আমরা সম্মিলিত অনুশীলনের ভিত্তিতে, মানুষ ও মনুষ্যত্বের মুক্তিতে, মানবীয় মর্যাদা প্রতিষ্ঠার মহতী সংগ্রামে- আমাদের আদর্শিক সত্তা ও সমন্বয়ক দিশারী শ্রদ্ধেয় ‘বড়দা (আব্দুর রাজ্জাক মুল্লাহ রাজু শিকদার)’র নির্দেশিত পথই- সংগঠন ও সংগঠন কাঠামোর ক্ষেত্রে মতাদর্শিক দিশা হিসেবে গৃহীত; সেই আলোকেই অত্র প্রকাশনা অনুমোদিত। ]



মেনু

৭ দিনের সংবাদ দুনিয়া

 
সার্চ কমিটির ২০ জনের সংক্ষিপ্ত তালিকা
০১-০২-২০১৭

নির্বাচন কমিশন গঠনের লক্ষ্যে রাষ্ট্রপতি গঠিত অনুসন্ধান কমিটি রাজনৈতিক দলগুলোর কাছ থেকে পাওয়া ১২৫ টি নাম থেকে ২০ জনের সংক্ষিপ্ত তালিকা করেছেন।


ইসি গঠনের জন্য রাজনৈতিক দলগুলোর জমা দেওয়া চিঠি মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সার্চ কমিটির কাছে পৌঁছেদেন। সার্চ কমিটির সদস্যরা চিঠিতে প্রস্তাবিত নামগুলো যাচাই-বাছাই করতে ৩১শে জানুয়ারি সুপ্রিম কোর্টের জাজেস লাউঞ্জে বৈঠক করেন।
 

বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম গণমাধ্যমকে বলেন, ২৭টি রাজনৈতিক দল সার্চ কমিটির কাছে নাম দিয়েছেন। সার্চ কমিটি প্রায় ১২৫টি নাম থেকে আলোচনা শেষে ২০ জনের একটি সংক্ষিপ্ত তালিকা করেছেন। তিনি আরও বলেন রাজনৈতিক দলের নামগুলোর মধ্যে সামঞ্জস্য রয়েছে। তবে রাজনৈতিক দলগুলোর দেওয়া নাম পবিত্র আমানত। তাই তা আমরা প্রকাশ করব না। কমিটির ছয়জন সদস্য আবারও বসবেন। কমিটির সদস্যরাও নিজেদের অনেক নাম এখানে যুক্তও করতে পারবেন।’ এমনকি রাজনৈতিক দলগুলোর দেওয়া নাম থেকেই যে পরবর্তী নির্বাচন কমিশন গঠন করতে হবে, তারও কোনো বাধ্যবাধকতা নেই।

 

সার্চ কমিটি ৩১টি রাজনৈতিক দলের কাছে নাম চেয়ে চিঠি পাঠায়। এর মধ্যে আওয়ামী লীগ, বিএনপিসহ ২৫টি দল পাঁচটি করে নাম জমা দিয়েছে। দুটি দল বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) ও জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ (রব) চিঠি দিয়ে নাম না দেওয়ার কারণ উল্লেখ করেছে। আর নাম বা কোনো চিঠি দেয়নি এমন চারটি দল হলো ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ, বিকল্পধারা বাংলাদেশ, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস ও গণফোরাম।

 

প্রসঙ্গতঃ বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন নেতৃত্বাধীন সার্চ কমিটি গত ২৮শে জানুয়ারি তাদের প্রথম বৈঠক থেকে সংলাপে অংশ নেওয়া ৩১টি রাজনৈতিক দরের কাছে পাঁচজন করে ব‌্যক্তির নাম চেয়েছিল। দলগুলোর মধ‌্যে বিকল্প ধারা বাংলাদেশ, গণফোরাম, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ও বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস সার্চ কমিটিকে কোনো চিঠি দেয়নি। যেসব দল চিঠি দিয়েছে আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি, লিবারেল ডেমোক্রেটি পার্টি (এলডিপি),  কৃষক-শ্রমিক জনতা লীগ, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ), বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি, বাংলাদেশ ন্যশনালিস্ট ফ্রণ্ট (বিএনএফ), ইসলামী ঐক্যজোট, জাতীয় পার্টি (জেপি), বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশন, বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি (বিজেপি), বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি), ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (ন্যাপ), সাম‌্যবাদী দল, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি), জাসদ (আম্বিয়া), বাসদ, গণতন্ত্রী পার্টি, খেলাফত আন্দোলন, বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ, গণফ্রন্ট, খেলাফত মজলিস, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট, বাংলাদেশ মুসলিম লীগ (বিএমএল) ও জাকের পার্টি।

 

সিপিবিসহ কয়েকটি দল ইসি গঠনে নাম প্রস্তাবের বিরোধিতা করে আগেই বলেছিল, এভাবে রাজনৈতিক দলগুলো নাম প্রস্তাব করলে ওই ব‌্যক্তিদের নিয়ে বিতর্ক আরও বাড়বে। ৩১শে জানুয়ারি এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে সিপিবি জানিয়েছে, “আমরা বরং মনে করি, কোনো রাজনৈতিক দল যদি কোনো নাম সুপারিশ করে, সে ধরনের নাম ‘ডিসকোয়ালিফাই’ করা উচিত।” জেএসডির সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতন গণমাধ্যমকে জানান তারা সার্চ কমিটিকে চিঠির জবাব দিলেও কোনো নাম জমা দেননি।

 

তথ্য সূত্রঃ

http://a1news24.com/

http://www.dhakatimes24.com/2017/01/31/18651/