[ আমরা সম্মিলিত অনুশীলনের ভিত্তিতে, মানুষ ও মনুষ্যত্বের মুক্তিতে, মানবীয় মর্যাদা প্রতিষ্ঠার মহতী সংগ্রামে- আমাদের আদর্শিক সত্তা ও সমন্বয়ক দিশারী শ্রদ্ধেয় ‘বড়দা (আব্দুর রাজ্জাক মুল্লাহ রাজু শিকদার)’র নির্দেশিত পথই- সংগঠন ও সংগঠন কাঠামোর ক্ষেত্রে মতাদর্শিক দিশা হিসেবে গৃহীত; সেই আলোকেই অত্র প্রকাশনা অনুমোদিত। ]



মেনু

৭ দিনের সংবাদ দুনিয়া

 
ঝিনাইগাতী উপজেলা কার্যালয়ে মুক্তিজোটের ১৭তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপিত
২৪-১১-২০১৭

বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তিজোট-এর ১৭তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে গত ২৪শে নভেম্বর শেরপুর জেলার ঝিনাইগাতী উপজেলা কার্যালয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

 

আলোচনা সভায় শেরপুর জেলা প্রধান মোঃ শহিদুল ইসলাম, জেলা এডিটোরিয়াল বোর্ড প্রতিনিধি শাহীনুর ইসলাম, ঝিনাইগাতী ৬নং ওয়ার্ড কমিটির যুগ্ম সমন্বয়কারী সুজন মিয়া, নলকুড়া ২নং ওয়ার্ড কমিটির সমন্বয়কারী মোঃ ইউনুস আলী সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 

আলোচনায় জেলা প্রধান বলেন, নির্বাচন কমিশনের সাথে সংলাপে মুক্তিজোট ‘জাতীয় পরিষদ’ গঠনের প্রস্তাব দিয়ে সব রাজনৈতিক দলের এক টেবিলে বসার সুযোগ করে দিয়েছে, যা আজ জাতীয় রাজনীতিতে জাতীয় ঐক্যতার স্বার্থে একমাত্র উপায়। এছাড়াও তিনি বলেন, স্থানীয় সরকার নির্বাচনের ক্ষেত্রে নির্বাচনী আইন সংবিধানের মৌলিক অধিকারের পরিপন্থী হওয়ায় তা সংস্কারের জন্য মুক্তিজোট হাইকোর্ট রিট করে, যার পথ ধরে সংবিধান বিরোধী আইন বাতিল করতে রাষ্ট্রপতি অধ্যাদেশ জারি করেন এবং স্থানীয় নির্বাচনে দলীয় প্রতীক ব্যবহার করার আইন পাশ করা হয়।

 

এছাড়াও আলোচনায় জেলা এডিটোরিয়াল বোর্ড প্রতিনিধি শাহীনুর ইসলাম মুক্তিজোট গড়ে উঠার সংগ্রামী ইতিহাস সম্পর্কে আলোকপাত করেন।

 

আলোচনা সভার আহ্বায়ক জেলা প্রধান মোঃ শহিদুল ইসলাম উপস্থিত নেতৃবৃন্দকে মুক্তিজোটকে উপজেলার সর্বস্তরে ছড়িয়ে দেওয়ার আহ্বান জানান এবং সবাইকে দলের ১৭তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়ে আলোচনা সভা সমাপ্ত ঘোষণা করেন।