[ আমরা সম্মিলিত অনুশীলনের ভিত্তিতে, মানুষ ও মনুষ্যত্বের মুক্তিতে, মানবীয় মর্যাদা প্রতিষ্ঠার মহতী সংগ্রামে- আমাদের আদর্শিক সত্তা ও সমন্বয়ক দিশারী শ্রদ্ধেয় ‘বড়দা (আব্দুর রাজ্জাক মুল্লাহ রাজু শিকদার)’র নির্দেশিত পথই- সংগঠন ও সংগঠন কাঠামোর ক্ষেত্রে মতাদর্শিক দিশা হিসেবে গৃহীত; সেই আলোকেই অত্র প্রকাশনা অনুমোদিত। ]



মেনু

৭ দিনের সংবাদ দুনিয়া

 
রাজনৈতিক হস্তক্ষেপের বিরুদ্ধে বিশ্বজুড়ে বিজ্ঞানের জন্য মিছিল
২৩-০৪-২০১৭

 

বিশ্বব্যাপী প্রকৃত তথ্যের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক আক্রমণের প্রতিবাদে হাজার-হাজার বিজ্ঞানী বিক্ষোভে অংশ নিয়েছেন।

 

২২শে এপ্রিল ২০১৭ খ্রিস্টাব্দে বিশ্ব ধরিত্রী দিবসে বিজ্ঞানের জন্য মিছিল-সমাবেশ করেন বিজ্ঞানীরা, বিবিসি জানায় ধরিত্রী দিবসকে সামনে রেখে প্রথমবারের মত এই 'বিজ্ঞানের জন্য যাত্রা' বা 'মার্চ ফর সায়েন্স' আয়োজন করা হয়। 'মার্চ ফর সায়েন্স' থেকে পরিবেশ সুরক্ষার বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী তুলেছেন বিজ্ঞানীরা। তারা বিজ্ঞানীদের রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ থেকে সুরক্ষা এবং তাদের প্রতি সমর্থনের আহ্বান জানিয়েছেন।

 

ওয়াশিংটন ডিসির প্রধান মিছিলে ক্যালিফোর্নিয়া একাডেমি অফ সায়েন্সের নির্বাহী পরিচালক, ড. জনাথন ফলি বলেন, বিজ্ঞানীদের গবেষণাকে অযৌক্তিকভাবে প্রশ্নবিদ্ধ করা হচ্ছে এবং রাজনীতিবিদরা গবেষণাকর্মকে যেভাবে আঘাত করছেন তা "নির্যাতনের সমতুল্য"। "আমাদের স্বাস্থ্য, নিরাপত্তা এবং পরিবেশবিষয়ক বিজ্ঞানকে তারা সুনির্দিষ্টভাবে টার্গেট করছে। যে বিজ্ঞান আমাদের সবচেয়ে মূল্যবান বিষয়গুলোকে সুরক্ষা করে"। এর ফলে "কিছু মানুষ হয়তো দুর্ভোগে পড়বে, কিছু মানুষ মারা যাবে"।

 

উদ্যোক্তারা আরও বলেন, প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরোধিতা করা এই মার্চের উদ্দেশ্য নয়, যদিও প্রশাসনের বিভিন্ন কর্মকাণ্ড "অনুঘটকের" কাজ করেছে। অস্ট্রিয়ার ভিয়েনায় আয়োজকদের ফেসবুক পেজে বলা হয়েছে, হোয়াইট হাউজে মি. ট্রাম্প আসার পর থেকে যে আন্দোলন শুরু হয়েছে তাতে অংশ নিতে মানুষকে তারা উদ্বুদ্ধ করছে। অতীতে মি. ট্রাম্প জলবায়ু পরিবর্তনকে একটি ভাঁওতাবাজি হিসেবে মন্তব্য করেছিলেন। তার এই দৃষ্টিভঙ্গি বিজ্ঞানীদের মধ্যে উদ্বেগ তৈরি করেছে এবং যুক্তরাষ্ট্রে সাধারণ মানুষদের কেউ কেউ বৈজ্ঞানিকভাবে প্রতিষ্ঠিত তথ্যের বিষয়েও সন্দিহান হয়ে পড়ছেন।

 

আয়োজকরা মনে করেন, মার্চ ফর সায়েন্সের আরেকটি লক্ষ্য হচ্ছে বিজ্ঞানী এবং তাদের গবেষণাকর্মকে সাধারণ মানুষের আরো কাছে নিয়ে আসা। সাধারণ মানুষদের সাথে যোগাযোগ সৃষ্টি করাটা বিজ্ঞানীদের জন্য কঠিন হতে পারে এবং তারা এই মার্চ থেকে বিজ্ঞানীদেরও রাজনীতিতে আসার জন্য উদ্বুদ্ধ করছেন, যাতে তাদের কথা তারা কার্যকরভাবে তুলে ধরতে পারেন।

 

ওয়াশিংটন ডিসি ছাড়াও লন্ডন, বার্লিন, ভিয়েনা, সিডনি, জেনেভাসহ বিশ্বের বহু শহরে প্রতিবাদ সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

 

তথ্য সূত্রঃ

http://www.bbc.com/bengali/39683265